PC Header Top Ads

Type Here to Get Search Results !

Display Responsive Ads

ইউরোপে মুদ্রনশিল্পে বিপ্লব ।

 ইউরোপে মুদ্রনশিল্পে বিপ্লবের কারনঃ

ইউরোপে মুদ্রনশিল্পে বিপ্লব ।


মধ্যযুগের পরবর্তীকালে কাগজের বহুল প্রচলন, মুদ্রনযন্ত্রের আবিষ্কার , শিক্ষক প্রসার , নবজাগরনপ্রসূত চেতনার  প্রসার প্রভৃতি ফলে ইউরোপে পঞ্চদশ শতকে মুদ্রনশিল্পে অভাবনীয় অগ্রগতি ঘটে। পূর্বেকার হাতে লেখা পুথির দিন ফুরিয়ে যায় এবং পঞ্চদশ শতকের মাঝামাঝি সময় থেকে ইউরোপে মুদ্রনযন্ত্রের সাহায্যে বইপত্র ছাপা হতে থাকে । 

​মুদ্রন বিপ্লবের পটভূমি বা কারনঃ

​ পঞ্চদশ শতকের মাঝামাঝি সময় থেকে ইউরোপে মুদ্রনযন্ত্রের সাহায্যে বই ছাপার কাজ শুরু হলে মুদ্রনশিপ্লে বিপ্লব ঘটে যায়।

​ইউরোপের মুদ্রন বিপ্লবের পটভূমি বা কারন হিসেবে বিভিন্ন বিষয় গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করেছিল । যেমন-


​1. কাগজের প্রচলনঃ

(১) হাতে লেখা পুথি: মধ্যযুগের ইউরোপে এগজেম্পলার নামে মূল পুথি হাতে নকল করে প্রকাশ করা হত । তখন ভেড়া বা বাছুরের চামড়া থেকে তৈরি দামি পার্চমেন্ট -ত্রর ওপর হাতে লিখে পুথি প্রকাশ করা হত । ত্রয়োদশ - চতুর্দশ শতকে হাতে লেখা অ্যারিস্টটলের প্রায় ২০০০ হাজার টাকা পুথি পাওয়া গেছে । (২) কাগজের প্রচলন: পরবর্তীকালে চিনের কাগজ তৈরির  কৌশল আরবদের   মাধ্যমে ইউরোপে পৌছোলে সেখানকার মুদ্রনশিপ্লে কাগজের ব্যাপক ব্যবহার শুরু হয় । আরবের বনিকরা খ্রিস্টীয় দ্বাদশ শতকে স্পেনে কাগজ তৈরির কৌশল নিয়ে আসে । পরবর্তী দুশো বছরের মধ্যে ত্রই কৌশল ইতালি (১২৭০খ্রি,)  ফ্রান্স (১৩৪০ খ্রি,) জার্মানি প্রভৃতি দেশে পৌঁছে গেলে কাগজে বইপত্র ছাপার বহুল প্রচলন ঘটে ।


​2. সস্তায় মুদ্রনঃ 

​পার্চমেন্টের পরিবর্তে কাগজে বই ছাপার কাজ শুরু হলে সেগুলি  যেমন দেখতে সুন্দর হয় তেমনি দামেও সস্তা হয় । কাগজে মুদ্রিত বইগুলি পাঠকদের বেশি করে আকৃষ্ট করে । আবার বহুমূল্য পার্চমেন্ট বই ছাপতে যে বিপুল ব্যয় হত কাগজে ছাপার প্রচলন হলে সে ব্যয় বহুলাংশে হ্রাস পায় ।


​3. মুদ্রনযন্ত্রের ব্যবহারঃ 

​(১) মুদ্রন যন্ত্রের প্রতিষ্ঠা: মুদ্রন বিপ্লবের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে যে বিষয়টি সর্বাধিক যুক্ত ছিল তা হল মুদ্রনযন্ত্রের আবিষ্কার । চিন বা আরবে কাঠের ব্লকের দ্বারা মুদ্রনের যে কৌশল প্রচলিত ছিল তা পঞ্চদশ শতকের ইউরোপ  আমুল পালটে যায় । জোহানেস গুটেনবার্গ পঞ্চদশ শতকের মাঝামাঝি সময়ে মুদ্রন যন্ত্র আবিষ্কার করেন ।

​(২)  মুদ্রনশিল্পে উৎকর্ষ: এসময় ধাতু শিল্পের  অগ্রগতি , স্বর্নকারদের খোদাই করা নতুন ধরনের সূক্ম ধাতব অক্ষর প্রভৃতি ছাপার কাজে উৎকর্ষ আনে । অল্প সময়ে প্রচুর বই মুদ্রিত হয়ে থাকে ।

4. বয়ের চাহিদা বৃদ্ধিঃ

​আগে একমাত্র উচ্চবিত্তরাই কেনার বিলাসিতা উপভোগ করত । পরবর্তীকালে হাতে লেখার পরিবর্তে যন্ত্রের সাহ্যয্যে মুদ্রন এবং দামি পার্চমেন্টের পরিবর্তে সস্তা কাগজে ছাপার ফলে মুদ্রিত বইয়ের উৎপাদন ব্যয় খুব কম হত । ফলে সাধারন পাঠকদের কাছে সন্তায় সুদৃশ্য বই পৌঁছে যেতে থাকে । সর্বস্তরের উৎসাহী মানুষ বই কিনতে থাকে ।


​5. নবজাগরনের প্রভাব :

​পঞ্চদশ শতকে ইউরোপের  নবজাগরনপ্রসূত  ভাবধারার প্রসার মুদ্রন বিপ্লবের বিকাশে বিশেষভাবে সহায়তা করেছিল । নবজাগরনের ফলে সাহিত্য, বিজ্ঞান, শিল্পকলা - সহ শিক্ষার সমস্ত শাখায়  জ্ঞানের 

​ অভূতপূর্ব স্ফূরন ঘটে, জ্ঞানার্জনের আগ্রহ সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করে । নবজাগরনপ্রসূত ভাবধারার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অসংখ্য বইপত্র ছাপা হতে থাকে । এই সময় অসংখ্য নতুন নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্থাপিত হয় এবং শিক্ষার ব্যাপক প্রসার ঘটে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.

Top Post Ad

Below Post Ad

Ads Section